ব্যাঙাচি - আগস্ট ২০২১ (গণিত) ব্যাঙের ছাতার বিজ্ঞান কর্তৃক প্রকাশিত ফ্রি ম্যাগাজিন

 


Download (2nd Edition)

বিবরণ

নাম: ব্যাঙাচি
বর্ষ: ০১
সংখ্যা: ১০
ধরণ: ম্যাগাজিন / বিজ্ঞান বিষয়ক
সম্পাদক: সমুদ্র জিত সাহা, শাহরিয়ার জামান সিহাম, তানভীর রানা রাব্বি
প্রকাশক: সমুদ্র জিত সাহা, নাঈম হোসেন ফারুকী
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ১৫০
আয়তন: ১৩ এমবি
পরিবেশক: ব্যাঙের ছাতার বিজ্ঞান

ঘোষণা:

প্রিয় পাঠক, নিশ্চয়ই ভালো আছেন। আপনি ব্যাঙাচির নিয়মিত পাঠক হয়ে থাকলে হয়তো জানেন; মাসিক ম্যাগাজিন হলেও প্রতিটি ব্যাঙাচি প্রকাশ করতে ইদানীং কয়েক মাস লেগে যাচ্ছে আমাদের। একারণে হয়তো মনে প্রচুর ক্ষোভও জন্মেছে আপনার, সেজন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত।
ব্যাঙাচির পেছনে কাজ করে ছোট্ট একটি টিম, টিম ব্যাঙাচি। এখানে প্রায় সবাই-ই শিক্ষার্থী, স্কুল, কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া। পড়াশোনা ছাড়াও ব্যক্তিগত অন্যান্য কাজের পাশাপাশি এরা সবাই স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে সময় দেয় ব্যাঙাচি প্রকাশের জন্য। বিভিন্ন কন্টেস্ট আয়োজন করে আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ ‘ব্যাঙের ছাতার বিজ্ঞান’ থেকে লেখা সংগ্রহ করে আমাদের সিলেকশন টিম। সেখান থেকে লেখাগুলো যায় প্রুফ রিডার টিমের হাতে। তারা বানানের ব্যাপারে খুবই সিরিয়াস। প্রকাশের পর বানান ভুল পেলে তারা যেন শারিরিকভাবে আঘাত পান। তাই খুবই সতর্কভাবে একাধিক ধাপে বানান শুদ্ধির কাজ করেন। বানান দেখা হয়ে গেলে লেখাগুলো পৌঁছায় সম্পাদকদের হাতে। তারা লেখাগুলোকে ম্যাগাজিন উপযোগী করে গোছান ও প্রয়োজনে লেখা যোগ করেন বা বাদ দেন। এরপর আসে লে-আউট টিমের হাতে। ব্যাঙাচির জনপ্রিয়তার অন্যতম প্রধান কারণ এর লে-আউট। নিবিড় পর্যবেক্ষণের মধ্যে দিয়ে লে-আউট সম্পন্ন করা হয়। ধাপে ধাপে অনেকে মিলে বিভিন্ন আইডিয়া ও পরামর্শ দিতে থাকি। লে-আউট চলার পাশাপাশি চলতে থাকে কভারের কাজ। আইডিয়া দিয়ে গুঁতিয়ে গুঁতিয়ে কভার আর্টিস্টকে দিয়ে আঁকিয়ে নেওয়া হয় অসাধারণ সব কভার। উল্লেখ্য, পেশাদার কভার আর্টিস্টও সম্পূর্ণ বিনামূল্যে আঁকান ব্যাঙাচির সব প্রচ্ছদ। আর কয়েক মাসব্যাপী এত মানুষের নিঃস্বার্থ পরিশ্রমের শেষে জন্ম হয় একেকটা ব্যাঙাচির।
বুঝতেই পারছেন কতটা সময় ও পরিশ্রম সাপেক্ষ কাজ। তার ওপর তো আছেই বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা। এসবের পেছনে লেগে যায় দেড়-দুই কী তিন তিনটে মাস। অনেকবার আমরা ভেবেছি এবার একমাসের মধ্যে প্রকাশ করবই, বা যেভাবেই হোক ব্যাঙাচির সময়সূচি ঠিক করবই। প্রতিবারই কোনো না কোনোভাবে করা সম্ভব হয় না আর। তার ওপর দিনের পর দিন প্রকাশের ক্ষণ পিছিয়েই চলেছে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি ব্যাঙাচিকে আর মাসিক ম্যাগাজিন বলব না। এখন থেকে ব্যাঙাচি যে মাসে প্রকাশিত হবে সে মাসের সংখ্যা হিসেবেই বিবেচিত হবে। আশা করি বরাবরের মতোই ধৈর্য নিয়ে আমাদের পাশে থাকবেন, বিজ্ঞানের সাথে থাকবেন। ধন্যবাদ। 

সমুদ্র জিত সাহা
টিম ব্যাঙাচি



মন্তব্যসমূহ

  1. এই মন্তব্যটি লেখক দ্বারা সরানো হয়েছে।

    উত্তরমুছুন
  2. এই মন্তব্যটি লেখক দ্বারা সরানো হয়েছে।

    উত্তরমুছুন
  3. 🙏♥️কোনো ব্যাপার না, আমরা সর্বদা আপনাদের পাশেই আছি।

    উত্তরমুছুন
  4. সব বাঁধা বিপত্তির পরেও এই অমূল্য কাজ চলতে থাকুক।

    উত্তরমুছুন
  5. সবসময় সাথে আছি টিম ব্যাঙাচি।

    উত্তরমুছুন
  6. আমি ডাউনলোড করার অফশনটা খুঁজে পাচ্ছি না😪

    উত্তরমুছুন

আর্কাইভ

বিভাগগুলি

যোগাযোগ ফর্ম

প্রেরণ